মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

নৈতিকতা বিষয়ক শ্লোগান

১।  সত্যকে দৃড়ভাবে ধারণ করুন, মিথ্যাকে বর্জন করুন। কারণ মিথ্যা  সকল পাপের মুল।

২। কেউ মুল্য দিক বা না দিক, জীবনে সৎ থাকুন।

৩। পিতা-মাতাই সবচেয়ে নিঃস্বার্থ বন্ধু, তাদের পরামর্শ সর্বাগ্রে গ্রহণ করুন।

৪। সময়ের কাজ সময়ে করুন, জীবনকে গড়ে তুলুন।

৫। বড়দের সম্মান করুন-অনেক না চাইতেই পাবেন।

৬।একটি ভালো চিন্তা আরো একটি ভালো চিন্তার জন্ম দেয়, সুতরাং সৎ চিন্তা করুন।

৭। ধর্মের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হোন, ধর্ম মানুষকে সৎ পথে পরিচালিত করে।

৮। অপরকে সম্মান করুন, নিজেও সম্মানিত হবে।

৯। পিতা-মাতাকে ভালো বাসুন, অমৃতের সন্ধান পাবেন।

১০। বিনয়ী হোন,জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে জয়ী হবেন, অহংকার ত্যাগ করুন।

১১। একটি মিথ্যাকে প্রতিষ্ঠা করতে হলে হাজারটি মিথ্যা বলতে হয়, সুতরাং মিথ্যা বলা ত্যাগ করি।

১২।কারো উপকার করতে না পারলেও কারো ক্ষতি হয় এমন কাজ করবেন না।

১৩। অন্যায়কারীকে ভয় পাবেন না, অন্যায়ের প্রতিবাদ করুন,না পারলে নীরব থাকুন, নীরবতাও এক ধরনের প্রতিবাদ।

১৪। আপনার কর্মপরিবেশ ও কর্মসূচী পরিচ্ছন্ন রাখুন।

১৫। সততা ও নিষ্ঠার সাথে পরিশ্রম করুন, জীবনে বড় হবেন।

১৬।প্রতিদিন অন্তত একটি ভালো কাজ করুন।

১৭। উচ্ছাস করুন; কিন্তু সীমার মধ্যে থেকে।

১৮। অভাবী ও প্রতিবন্ধীদের প্রতি দায়িত্বশীল আচরণ করুন।

১৯। নিজে যে অভ্যাস ত্যাগ করতে পারেন না তা অপরকে চাপিয়ে দিবেন না।

২০। কষ্টকর ছাত্রজীবন সুখকর কর্মজীবন, সুখকর ছাত্রজীবন কষ্টকর কর্মজীবন বিষয়টি শিক্ষার্থীদের জানান।

২১। যে যাই বলুক, আপনি সত্যের পথে চলুন।

২২। বন্ধুর কোন অপ্রিয় কথা তার অনুপস্থিতিতে বলবেন না।

২৩। সর্বক্ষেত্রে গণতান্ত্রিক আচরণ করুন।

২৪। সদালাপি হোন মানুষের ভালোবাসার চেয়ে বড় সম্পদ পৃথিবীতে নেই।

২৫। ব্যক্তি ও সামাজিক জীবনে সৎ ও সচ্ছ হোন।

২৬। প্রাতিষ্ঠানিক ও দাপ্তরিক কাজে সহকর্মীদের সাথে পরামর্শ করে সিদ্ধান্ত নিন।

২৭। সীমাবদ্ধ জীবনে সৃষ্টিশীল কিছু করুন মৃত্যুর পরি বেচে থাকুন।

২৮। হালাল পথে রোজগার করুন, এর ফজিলত তুলনামুলক বেশী এবং দীর্ঘস্থায়ী।

২৯। নিজের ও পরিবারের প্রয়োজন মেটানোর পাশাপাশি সামাজিক উন্নয়নে সাধ্যমত অর্থব্যয় করুন।


Share with :

Facebook Twitter